মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

১৯৭১ এ শহীদ মুক্তিযোদধাদের কবর

ভারত সীমামেত্ম মুক্তিযোদ্ধাদের গণ কবরঃ চুয়াডাঙ্গা জেলার জীবননগর উপজেলার বাংলাদেশ  ভারত সীমামেত্ম আমাদের মহান মুক্তিযোদ্ধার সময় মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহনকারী ০৬(ছয়) জনবীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন। তাঁদের বাংলাদেশ ভারত সীমামেত্ম শহীদের মর্যদায় কবর দেওয়া হয়।বর্তমানে ইহা ০৬(ছয়) কবর নামে পরিচিত। উপজেলা সদও হতে ০৯ কিঃমিঃ দূরে  উথলী ইউনিয়নে অবস্থিত। এখানে কোন আবাসন ব্যবস্থা নেই।

জীবননগর উপজেলার ধোপাখালী সীমান্তের জিরো পয়েন্টে সাবেক সেনা প্রধান মরহুম মোস্তাফিজুর রহমান এর নেতৃত্বে একগুরুত্বপূর্ন যুদ্ধ পরিচালিত এতে ৫জন বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন এবং জনাব মোস্তাফিজুর রহমান সাহেব¸রুতর আহত হন।

 

০৬(ছয়) জন বীর মুক্তিযোদ্ধা শহীদের নামের তালিকাঃ ১৯৭১ সালে ০৭ আগষ্ট ধোপাখালী এলাকায় মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ গ্রহনকারী নিন্মোক্ত ০৬(ছয়) জনবীর মুক্তিযোদ্ধ শহীদ হন।

 ০১। হাবিলদার-আব্দুল গফুর

০২। নায়েক-আবদুর রশিদ

০৩।নায়েক-আব্দুল মালেক

 ০৪। সিফাহিু আব্দুল আজিজ

০৫। সিফাহি আবু বকর

০৬। সিফাহি-ছিদ্দিক

০৬(ছয়) জন শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধা প্রত্যেকে ইপিআর সদস্য ছিলেন।

স্বাধীনতা যুদ্ধের যুদ্ধÿÎসমুহঃ

০১। ধোপাখালী মাঠের যুদ্ধ।

০২। দত্ত নগর কৃষি ফার্মের যুদ্ধ।

০৩। উথলী যুদ্ধ।

০৪। আন্দুলবাড়িয়া যুদ্ধ।

ধোপাখালী যুদ্ধে ক্যাপ্টেন মোসত্মাফিজুর রহমান আংশগ্রহন করেছিলেন এবং তিনি এ যুদ্ধে আহত হয়েছিলেন। পরবর্তীতে তিনি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী প্রধান হয়েছিলেন।

(তথ্য প্রদান করেন সার্বেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ নিজাম উদ্দীন)

   
     

 

নাম কিভাবে যাওয়া যায় অবস্থান
মুক্তিযোদ্ধ গণ কবর চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর থেকে বাস যোগে জীবননগর তারপর জীবননগর থেকে ৯ কিঃ মিঃ পাকারাস্তা রিকসা বা ভ্যান যোগে উথলী ইউনিয়নের মাধবখালী বটতলা হয়ে মাধবখালী মুক্তিযোদ্ধা কবরস্থান যেতে হয় । জীবননগর উপজেলার ধোপাখালী সীমান্তের জিরো পয়েটে